পাকিস্তানে পঙ্গপাল বিক্রি করে আয়!

প্রকাশিত: ৫:৪৮ অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০২০

যখন পঙ্গপালের হানায় কৃষকদের মাথায় হাত , ভারত ও পাকিস্তানে খাদ্য নিরাপত্তা সঙ্কটের আশঙ্কা। তখনই পাকিস্তানে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল ধরে বিক্রি করছে কৃষকরা। প্রতি কেজি পঙ্গপাল ২০ রুপিতে বিক্রি করছে পাঞ্জাবের ওকারা জেলার কৃষকেরা। খবর স্ক্রোল.ইন।

জানা যায়, পঙ্গপাল মুরগির উচ্চপ্রোটিন যুক্ত খাবার। তাই ওকারা জেলায় এক প্রকল্প গ্রহণ করে পাকিস্তানের জাতীয় খাদ্য নিরাপত্তা ও গবেষণা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মোহাম্মদ খুরশিদ ও পাকিস্তান কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের জৈবপ্রযুক্তিবিদ জোহর আলী।

তারা বলেন, “আমরা যখন শুরু করলাম তখন অনেকেই উপহাস করেছেন। কারণ পঙ্গপাল ধরে বিক্রি করবে এ চিন্তা তখনও পর্যন্ত কেউ করতে পারে নি। আমরা ইয়েমেনের ২০১৯ সালের একটি উদাহরণ থেকে উদ্বুদ্ধ হয়েছি। যুদ্ধ বিধ্বস্ত ও দুর্ভিক্ষ কবলিত ওই দেশটিতে শ্লোগান উঠেছিল, ‘পঙ্গপাল খেয়ে ফেল, ওরা ফসল খাওয়ার আগে’।

এই শ্লোগানকে মাথায় রেখে পাকিস্তানে ওকারা জেলাতে তিনদিনের পাইলট প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। প্রকল্পটি ছিল দেপালপুরে পেপলি পাহার বনে। ‘পঙ্গপাল ধর, আয় কর এবং ফসল বাঁচাও’এমন শ্লোগান নিয়ে প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের প্রতি কেজি পঙ্গপালের বিনিময়ে ২০ পাকিস্তানি রুপি করে দেয়া হয়।

এরপরই কৃষকরা প্রথম রাতেই ৭ টন পঙ্গপাল ধরে। তারপর সেগুলো মুরগির খাবার তৈরির কারখানায় বিক্রি করা হয়। একদিনে এই কাজে কোন কোন কৃষক ২০ হাজার রুপিও আয় করেন বলে জানিয়েছেন জৈবপ্রযুক্তিবিদরা।

পাকিস্তানে মুরগির খাবার তৈরির প্রতিষ্ঠান হাই-টেক ফিডসের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আতাহার বলেন, ‘আমরা যে সয়াবিন আমদানি করে প্রাণীর খাবার তৈরি করি, তাতে প্রোটিন ৪৫ শতাংশ, আর পঙ্গপালে আছে ৭০ শতাংশ।

সূত্র কৃতজ্ঞতা- যমুনা টিভি