৫-১১ বছরের শিশুদের জন্য ফাইজারের টিকার অনুমোদন দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: ৩:৪৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১
ফাইজার বায়োএনটেক উৎপাদিত কোভিড-১৯’র টিকা। সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ থেকে ১১ বছরের শিশুদের জন্য ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার অনুমোদন দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির শীর্ষস্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। অক্টোবরের শেষ নাগাদ এই অনুমোদন দেওয়া হতে পারে। এ বিষয়ের সঙ্গে যুক্ত দুজনের বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সূত্র জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ফাইজার ও জার্মানির বায়োএনটেকের যৌথভাবে তৈরি টিকাটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের যথেষ্ট পরিমাণ তথ্য চলতি সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে হাতে পাওয়া যাবে। তারপরই কোম্পানি দুটি যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনে (এফডিএ) পাঁচ থেকে ১১ বছরের শিশুদের ক্ষেত্রে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদনের জন্য আবেদন করতে পারবে।

আবেদনের তিন সপ্তাহের মধ্যেই শিশুদের জন্য এই টিকা নিরাপদ কি না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারবে এফডিএ। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্য পেতে এই মাস চলে যাওয়ার কারণেই আগামী মাসের শেষের দিকে সম্ভাব্য অনুমোদনের সময়সীমা ধরা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রে শিশুদের স্কুল চালু হয়েছে। এরই মধ্যে ডেলটা ভ্যারিয়্যান্টের দোর্দণ্ড প্রতাপের ফলে সংক্রমণের হারও বেড়ে গেছে। এমন পরিস্থিতিতে অভিভাবকেরা তাঁদের স্কুলগামী শিশু সন্তানদের জন্য টিকার বিষয়ে সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় সংক্রমণ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফসি স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের (এনআইএইচ) কয়েক হাজার কর্মীর সঙ্গে অনলাইন সভায় শিশুদের জন্য টিকা অনুমোদনের এই সময়সীমার কথা বলেছেন। রয়টার্সের একটি সূত্র এ কথা জানিয়েছে।

সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ ফাইজার যদি এফডিএ’র কাছে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদনের জন্য আবেদন করে আর ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্যসমূহ যদি অনুকূলে থাকে, ওই সূত্র মতে ড. ফসি বলেছেন, ‘অক্টোবরের প্রথম দুই-তিন সপ্তাহ সময় পাব। এরই মধ্যে ফাইজারও প্রস্তুত হয়ে উঠবে।’

মডার্নার টিকার ক্ষেত্রে পাঁচ থেকে ১১ বছরের শিশুদের তথ্য পেতে এবং তা বিশ্লেষণ করতে ফাইজারের চেয়ে তিন সপ্তাহের মতো বেশি সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন ড. ফসি। এ ক্ষেত্রে মডার্নার টিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে নভেম্বর হয়ে যেতে পারে।

তবে ফাইজার, মডার্না এবং এনআইএইচের কেউ এ বিষয়ে রয়টার্সকে এখনই কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

তবে, শুক্রবার এফডিএ জানিয়েছে—কোম্পানিগুলো তথ্য জমা দিলেই দ্রুততার সঙ্গে শিশুদের জন্য কোভিড-১৯ টিকার অনুমোদন নিয়ে কাজ শুরু করা হবে।