স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় কমানো হবে কোরবানির পশুর হাটের সংখ্যা

প্রকাশিত: ১০:২১ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৮, ২০২০
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ছবি : সংগৃহীত

স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা রেখেই এবার সারা দেশে কোরবানির পশুর হাটগুলো পরিচালনা করা হবে। স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় কমানো হবে হাটের সংখ্যা, এমন কথাই জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

দেশের কোথাও স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করে কোনোভাবেই পশুর হাট বসানো হবে না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী। পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে সরকার স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বাত্মকভাবে কাজে লাগাবে বলে জানান তিনি। স্বাস্থ্যবিধি মানতে ছোট হাটগুলো বসানো হবে না। লোকালয় থেকে দূরে এবং অপেক্ষাকৃত বড় জায়গায় অস্থায়ী পশুর হাট বসানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলেও জানান তাজুল ইসলাম।

করোনা সংক্রমণের কারণে এবার ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে অনেকটা ঘরবন্দি অবস্থায়। তবে ঈদুল আযহায় থাকে পশু কেনা ও কোরবানি। আর পশুর হাটে ব্যাপক জনসমাগম হয় বলে এ নিয়ে এখন থেকেই ভাবছে সরকার। তাই আসছে ঈদুল আযহায় জনস্বাস্থ্যকে গুরুত্ব দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে ভারত থেকে বৈধ বা অবৈধভাবে কোনো পশু আনার প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী। তিনি জানান, গত বছরের মতো এবারও ভারত থেকে কোনো পশু আমদানি করা হবে না। কোরবানির জন্য যে সংখ্যক গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া প্রয়োজন, তার চেয়ে অনেক বেশি পশু দেশেই আছে বলেও জানান তিনি।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানির পশু সংগ্রহ, বিক্রি ও পরিবহনের লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে বলেও জানান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী।