ঢাকা, শনিবার ২০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

স্কুল-কলেজে ক্লাস সংখ্যা বাড়বে কিনা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী


প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০২১

স্কুল-কলেজে ক্লাস সংখ্যা বাড়বে কিনা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষাবর্ষ শেষের পথে থাকায় এখন আর মহামারির মধ্যে সরাসরি ক্লাসের দিন বা সংখ্যা আর বাড়ছে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট এলাকায় নবনির্মিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবনির্মিত কার্যালয় উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর জানুয়ারিতে যখন নতুন ক্লাস শুরু হবে, আমরা চিন্তা করছি তখন ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে।’

করোনাভাইরাস মহামারিকালে দেড় বছর পর গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল-কলেজ খুলেছে। তবে অধিকাংশ শ্রেণিতে সপ্তাহে এক দিন ক্লাস চলছে।

দীপু মনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানোর আর কোনো সুযোগ নেই। কারণ, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করেই শিক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। তা ছাড়া বিশ্বের কিছু কিছু দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ লক্ষ করা যাচ্ছে। তাই এই মুহূর্তেই কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তাই আগামী জানুয়ারিতে আমরা চিন্তা করছি, যদি করোনা পরিস্থিতি এমন থাকে, তাহলেই আমরা চিন্তা করব ক্লাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করার জন্য।’

সাম্প্রতিক সময়ে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিষয়ে দীপু মনি বলেন, দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার জন্য গত কয়েক দিনে যে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে, তার পেছনে কারা ইন্ধন দিয়েছে; তা খুঁজে বের করতে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো কাজ করছে।

সাম্প্রদায়িকতা প্রতিরোধে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অশুভ অপশক্তি যতই সংঘবদ্ধ হোক না কেন, আমরা শুভশক্তির মানুষ সবাই যদি একজোট হই, তাহলে কখনোই অশুভ কোনো শক্তি জয়ী হতে পারবে না।’

দীপু মনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার যেখানে অসাম্প্রদায়িক চেতনাবোধে দেশকে উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন সেখানে প্রতিক্রিয়াশীল চিহ্নিত চক্র বিএনপি-জামায়াত এবং তাদের দোসররা এই সরকারের উন্নয়নের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে নানা অপকর্ম করছে। তাই দেশের পক্ষে সব শুভবুদ্ধির মানুষকে অশুভ শক্তির মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। কারণ, আগামী ২০২৩ সালের জাতীয় নির্বাচনকে বানচাল করতে ওরা দেশে বিভেদ সৃষ্টি করছে। আর তা এখনই রুখে দিতে হবে।