সীমিত আকারে অক্সিজেট উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমোদন

প্রকাশিত: ৭:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৯, ২০২১

করোনায় আক্রান্ত ও সংকটাপন্ন রোগীদের অক্সিজেনের চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) উদ্ভাবিত অক্সিজেটের সীমিত আকারে উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

গতকাল বুধবার বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তৌফিক হাসান নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এই তথ্য জানিয়েছেন। তাঁর নেতৃত্বে একটি দল এই যন্ত্রটি আবিষ্কার করেছে।

ড. তৌফিক হাসান বলেছেন, “ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর বুয়েটকে আপাতত ২০০ ইউনিট ‘অক্সিজেট’ সিপ্যাপ যন্ত্র তৈরি ও ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। ইনশাআল্লাহ, বাংলাদেশে মেডিক্যাল ডিভাইস ইনোভেশনে এই প্রজেক্টটি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।”

বুয়েটের এই শিক্ষক আরও জানান, তাঁরা চান অক্সিজেনের উচ্চমূল্য যেন চিকিৎসার অন্তরায় না হয়। অক্সিজেটের মাধ্যমে অত্যন্ত স্বল্প খরচে উচ্চচাপের অক্সিজেন উৎপাদন করা যাবে।

বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি দল প্রায় এক বছর গবেষণার পর এই যন্ত্র আবিষ্কার করে। যন্ত্রটি সহজে ব্যবহার ও বহনযোগ্য। এটি পরিচালনায় বিদ্যুতেরও প্রয়োজন হয় না।

গত মে মাসে ঢাকা মেডিকেল কলেজে অক্সিজেটের তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয় বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়।