সিনহা হত্যা মামলায় পরিস্কার তথ্যচিত্র মিলেছে: র‌্যাব

প্রকাশিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

সিনহা হত্যা মামলায় পরিস্কার তথ্যচিত্র পেয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা; সংবাদ সম্মেলনে জানালো র‌্যাব।

আজ বুধবার র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. আশিক বিল্লাহ প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, নীলীমা রিসোর্ট থেকে জব্দ করা ২৯টি আলামত রামু থানা থেকে বৃহস্পতিবার গ্রহণ করা হবে।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদসহ নানান ঘটনা বিশ্লেষণ করে মেজর অবসরপ্রাপ্ত সিনহা রাশেদ খান হত্যার পুরো তথ্যচিত্র পাওয়া গেছে। তদন্ত সংস্থা র‌্যাব বলছে নীলিমা রিসোর্ট থেকে জব্দ করা ল্যাপটপ ডিভাইসসহ ২৯টি আলামতও বৃহস্পতিবার রামু থানা পুলিশ- তদন্ত কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করবে। এদিকে রিমান্ড শেষে বৃহস্পতিবার চার পুলিশসহ ৭ জনকে হাজির করা হচ্ছে আদালতে।

এর আগে, সাবেক মেজর সিনহার সহাযোগী শিপ্রা দেবনাথের জব্দকৃত মালামাল র‌্যাবের কাছে হস্তান্তরের নির্দেশ দেন আদালত। এগুলো মধ্যে রয়েছে- মোবাইল, ল্যাপটপ, হার্ডডিস্কসহ ২৯ ধরণের মালামাল।

গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মারিষবুনিয়া পাহাড়ে ভিডিওচিত্র ধারণ করে মেরিন ড্রাইভ দিয়ে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকার নীলিমা রিসোর্টে ফেরার পথে শামলাপুর তল্লাশিচৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা।

সিনহা নিহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে দুটি মামলা হয়। একটি মামলায় হয় টেকনাফ থানায়। এই মামলায় সরকারি কাজে বাধা ও গুলিতে নিহত হওয়ার অভিযোগ আনা হয়। সেই মামলার আসামি করা হয় সিফাতকে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে রামু থানায় দায়ের করা মামলায় আসামি করা হয় শিপ্রা দেবনাথকে। তারা দুজনই বর্তমানে জামিনে মুক্ত।

৫ই আগস্ট সিনহার বড় বোন বাদী হয়ে একই আদালতে টেকনাফ থানার বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলী, থানার এসআই নন্দলাল রক্ষিতসহ নয় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।