সাগরে লঘুচাপ, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০

দেশের আকাশে অশনি সংকেত: দিনভর বৃষ্টি ঝরবে আজ
সাগরে লঘুচাপ, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

পশ্চিম ও মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ভারতের ওড়িশা উপকূলে লঘুচাপ আকারে অবস্থান করছে। এর ফলে দক্ষিণপশ্চিম মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর বিস্তার লাভ করেছে।

লঘুচাপটি আজ শনিবার (১৩ জুন) ভারতের ওড়িশার স্থলভাগে প্রবেশ করতে পারে। লঘুচাপের প্রভাবে আজ দেশের প্রায় সব জেলাতেই হালকা থেকে ভারি বর্ষণ হবে। দেশের চারটি সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক গণমাধ্যমকে বলেন, সুস্পষ্ট লঘুচাপটি শুক্রবার রাতে লঘুচাপ আকারে পরিণত হয়েছে। এটি অনেকটা দুর্বল হয়ে গেছে। তবে এর প্রভাবে আজ শনিবার সারাদেশে বৃষ্টি হবে। সমুদ্রে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত বহাল থাকবে।

আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে বরিশাল, খুলনা, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের অধিকাংশ জেলায় আজ অস্থায়ী দমকা ঝোড়ে হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। এ ছাড়া ঢাকা, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা এক থেকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে।

গতকাল সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে ময়মনসিংহে ৭০ মিলিমিটার; ঢাকাসহ দেশের প্রায় সব জেলায়ই বৃষ্টি ঝরেছে।

এদিকে আবহাওয়ার বিশেষ সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত লঘুচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা তৈরি হচ্ছে। বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরের ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে জেলেদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।