সরকারের প্রণোদনা নিয়ে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা অমানবিক ও মানবতাবিরোধী: রিজভী

প্রকাশিত: ৬:০৮ অপরাহ্ণ, জুন ৮, ২০২০

সরকারের প্রণোদনা নিয়ে পোশাক শিল্প মালিকদের শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা অমানবিক ও মানবতাবিরোধী বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন রিজভী।

এ সময় রিজভী আরও বলেন, ‘পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন—বিজিএমইএর সভাপতি জুন মাস থেকে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। ফলে পোশাক কারখানার শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। প্রণোদনার পাঁচ হাজার কোটি টাকা নেওয়ার পর এই ঘোষণা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। শ্রমিকদের জীবন জীবিকাকে আমলে না নিয়ে ছাঁটাইয়ের কথা বলা চরম অমানবিক ও মানবতাবিরোধী অপরাধ। তাদের এই ঘোষণায় অন্য কোনো দূরভিসন্ধি থাকতে পারে।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আপৎকালীন পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনার বাইরে পোশাক কারখানার মালিকদের নগদ সহায়তা দেয় সরকার। এত সুবিধা পাওয়ার পরও এই চরম দুঃসময়ে তারা হঠাৎ করেই শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিয়ে অমানবিক কাজ করেছেন। পোশাক কারাখানায় শ্রমিক ছাঁটাই অব্যাহত আছে। লকডাউন শুরুর পর থেকে প্রায় ৭০ হাজার শ্রমিক ছাঁটাই করা হয়েছে। তাদের রুজি-রোজগার বন্ধ হওয়ায় পরিবার নিয়ে মানবেতন জীবনযাপন করছে। এই সময়ে শুধু ব্যবসার কথা চিন্তা করে ছাঁটাই অন্যায্য।’

রিজভী বলেন, ‘সরকার ভেন্টিলেটর আমদানির পরিকল্পনা নিলেও এখনো কেনার কার্যাদেশ দেয়নি। আমদানির আগেই সেখানে দুর্নীতির কালো থাবা বিস্তার করেছে। ভেন্টিলেটর ক্রয়ের সঙ্গে খোদ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ছেলে জড়িত থাকার ইঙ্গিত দিয়েছে গণমাধ্যম। খবরে বলা হচ্ছে, দুর্নীতির কারণে এই কার্যাদেশ দিতে দেরি হচ্ছে। অপ্রিয় হলেও সত্য, এই সরকারের জন্মই যেহেতু নিশিরাতে জনগণের ভোট চুরির মাধ্যমে, ফলে সবাই মনে করে দুর্নীতি, চুরি-জোচ্চুরি এই সরকারের মূলভিত্তি। ভেন্টিলেটর, আইসিইউ, অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতালের বেড আর করোনা আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ এই সরকার। উন্নয়নের গল্পের মাঝে যে একটা বাতাসযুক্ত বেলুন ছিল করোনার সামান্য ধাক্কায় সেটা ফুটো হয়ে গেছে।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘দেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে দেখা যায়, করোনায় মৃত্যুর চেয়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে মানুষের মৃত্যুর সংখ্যা দ্বিগুণ। মৃত্যুর পর কারো পরীক্ষা করার সুযোগ পাওয়া গেলে জানা যাচ্ছে, করোনা পজেটিভ। তবে এসব খবরে সরকারের ভ্রুক্ষেপ নেই। বরং সরকারের প্রধানমন্ত্রী এসব খবর থোড়াই কেয়ার করছেন। তিনি এখন বিদেশের পত্রিকায় নিজেই নিজের সাফাই গেয়ে আর্টিকেল লিখছেন, নিজের সাফল্য প্রচার করছেন।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘সম্প্রতি আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তাঁর পরিবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন—এমন মনগড়া অসত্য তথ্য প্রকাশিত হচ্ছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে। দলের পক্ষ থেকে জানানো যাচ্ছে যে, এসব পরিবেশিত তথ্যগুলো মিথ্যা ও বানোয়াট এবং বিভ্রান্তিমূলক। কিছু ব্যক্তি বা গোষ্ঠী হীনস্বার্থ চরিতার্থ করতে এই মনগড়া মিথ্যা তথ্য ছড়াচ্ছে। আমরা দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই, পরম করুণাময় আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা সুস্থ ও সুরক্ষিত আছেন। এ ব্যাপারে আমি সংশ্লিষ্ট সবাইকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’