শুধু বিশেষ পরিস্থিতির জন্যই ভার্চ্যুয়াল কোর্ট : আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০
আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। ফাইল ছবি

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন- ভার্চ্যুয়াল কোর্ট করা হচ্ছে, একটি বিশেষ অবস্থা মোকাবিলা করার জন্য। এটি কিন্তু স্বাভাবিক বিচারব্যবস্থার বিকল্প নয়।

রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবন মিলনায়তনে সহকারী জজদের অনলাইন প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আজ রোববার প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে অনুষ্ঠানে যুক্ত হোন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন- ‘অত্যন্ত স্পষ্টভাবে বলতে চাই, স্বাভাবিকভাবে আদালত যেভাবে চলে, আমাদের সিআরপিসি (ফৌজদারি কার্যবিধি), সিপিসি (দেওয়ানি কার্যবিধি), সাক্ষ্য আইন এবং সর্বোপরি সর্বোচ্চ আইন বাংলাদেশের সংবিধান যেভাবে আদালত পরিচালনা ও চালানোর জন্য ব্যবস্থা রেখেছে, সেই স্বাভাবিকভাবেই সব সময় আদালত চলবেন। কিন্তু করোনাভাইরাসজনিত এ রকম কোনো পরিস্থিতি বা করোনাভাইরাস থাকাকালে যদি বাধ্য হয়ে আমাদের আদালতের কাজ সংকুচিত করতে হয়, তাহলে আদালতের কাজ বন্ধ না রেখে যাতে অন্যভাবে আইনানুযায়ী করতে পারি, সে জন্যই ভার্চ্যুয়াল কোর্ট বা আদালত কর্তৃক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ।’

ভার্চ্যুয়াল কোর্ট পরিচালনার জন্য যে অধ্যাদেশ হয়েছে, তা আইনে পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়ায় জানিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন- ‘কেউ যদি মনে করে থাকেন এ আইনটি ভার্চ্যুয়াল কোর্ট স্থায়ীভাবে চালানোর জন্য করা হচ্ছে, তা কিন্তু নয়। সব আইনে যেভাবে আদালত চলার জন্য বিধান আছে, সেভাবেই আদালত চলবেন। কিন্তু আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে এই করোনাভাইরাস বা অন্যান্য কোনো বিশেষ পরিস্থিতি এলে আমরা যেনো সেই পরিস্থিতি মোকাবিলা করে আদালত চালিয়ে যেতে পারি এবং মানুষকে বিচার পৌঁছে দিতে পারি, সে ব্যবস্থা আমাদের হাতে থাকতে হবে। সে জন্যই আদালত কর্তৃক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ।’

ভার্চ্যুয়াল আদালত সুচারুভাবে পরিচালনার জন্য বিচারকদের পাশাপাশি আইনজীবীদেরও প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে জানান আইনমন্ত্রী।