রাজধানীতে ‘লাল অঞ্চল’ ঘোষণা হলেও কার্যকর হয় নি কঠোর লকডাউন, সংক্রমণ বাড়ার শঙ্কা

প্রকাশিত: ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৮, ২০২০

ঢাকায় রেড জোন ঘোষণা হলেও লকডাউন কার্যকরের সিদ্ধান্ত হয় নি এখনো। স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা নির্ধারণ করে দেয়া হলেও বাস্তবায়নকারী সংস্থাগুলো সুনির্দিষ্টকরণের নামে সময়ক্ষেপণ করছে। এসব জোনের ভেতর সুনির্দিষ্ট ম্যাপিং করতে কতদিন লাগবে তাও নিশ্চিত করে বলতে পারছে না কেউ।

রাজধানীর রেড জোনগুলো অরক্ষিত অবস্থায় আছে। এ অবস্থায় পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হবে মত জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। ছোট ছোট এলাকা লকডাউন করলে সংক্রমণ প্রতিরোধে সফলতা আসবে না বলে মত জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। সিদ্ধান্তের ১৭ দিন পরও লকডাউন কার্যকর না করায় সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

সকালে পূর্ব রাজাবাজার পরিদর্শন শেষে উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়য়ের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট জোনিং ম্যাপ না পাওয়াতেই বিলম্ব হচ্ছে লকডাউন করতে। চুড়ান্ত ম্যাপ পেলেও তা কার্যকর করতে সময় লাগবে আরো ২ থেকে ৩ দিন। তবে সবগুলো এলাকা একসাথে লকডাউন করা সম্ভব নয় বলেও জানান তিনি।

রেড জোনের কোন কোন এলাকা লকডাউন করা হবে, তা চিহ্নিত করে সুনির্দিষ্ট কোনো নকশা স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে দেয়া হয় নি বলে জানান স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

তিনি জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দিয়েছেন, জোন ভিত্তিক লকডাউন বাস্তবায়নে প্রস্তুত থাকার। সংক্রমিত এলাকা পুরো লকডাউন না করে সাব জোনে ভাগ করার ওপর গুরুত্ব দেন তিনি।

এদিকে, জোনভিত্তিক লকডাউনের সিদ্ধান্তের পর ৯ জুন থেকে পূর্ব রাজাবাজারে পরীক্ষামূলক ভাবে লকডাউন চলছে। বর্তমানে এ এলাকায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ জন।