যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় জনসনের বেবি পাউডার বিক্রি বন্ধ

প্রকাশিত: ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় শিশুদের ট্যালকম পাউডার (বেবি পাউডার) বিক্রি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসন। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার এ ঘোষণা দিয়েছ কোম্পানিটি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানির তৈরি শিশুদের ট্যালকম পাউডারে ক্যান্সার সৃষ্টির জন্য দায়ী উপাদানের উপস্থিতি রয়েছে অভিযোগে ১৯ হাজার মামলা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ ভোক্তারা এসব মামলা করেছেন। এসব মামলার বেশিরভাগ যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির আদালতে বিচারাধীন।

এসব অভিযোগকে ‘ভুল তথ্য’ হিসেবে উল্লেখ করেছে কোম্পানিটি। ক্ষতিকর উপাদান থাকা নিয়ে এসব মামলার পর সম্প্রতি পণ্যটির চাহিদা অনেকখানি পড়ে গিয়েছে। এ কারণেই শিশুদের ট্যালকম পাউডার বিক্রি বন্ধের ঘোষণা দেয় কোম্পানিটি।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যসেবা পণ্য প্রস্তুতকারক এই শিল্পগোষ্ঠী জানিয়েছে, দেশটির ভোক্তা স্বাস্থ্য ব্যবসার প্রায় দশমিক ৫ শতাংশ দখলে রাখা শিশুদের এই ট্যালকম পাউডার বিক্রি সামনের মাসগুলোতে বন্ধ রাখা হবে। তবে যেসব খুচরা বিক্রেতাদের কাছে পণ্যটির মজুদ আছে তারা বিক্রি করতে পারবেন।

২০১৮ সালে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, জনসন অ্যান্ড জনসনের শিশুদের জন্য তৈরি ট্যালকম পাউডারে ক্যান্সার সৃষ্টিকারী হিসেবে পরিচিত ‘অ্যাসবেস্টাস’ নামে এক ধরনের দূষিত পদার্থ পাওয়া গেছে। অভ্যন্তরীণ নথি, আদালতের সাক্ষ্য ও অন্যান্য দলিল পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ১৯৭১ সাল থেকে ২০০০ সালের মধ্যে কোম্পানিটির তৈরি শিশুদের ট্যালকম পাউডারে প্রায়ই ওই ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের (এফডিএ) পরিচালিত পরীক্ষায়ও শিশুদের ট্যালকম পাউডারে ‘নিম্ন মাত্রায় অ্যাসবেস্টাস’ পাওয়া গেছে। তবে জনসন অ্যান্ড জনসন এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। কোম্পানিটি বলেছে, তাদের পরীক্ষায় এ ধরনে কোনো ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া যায়নি।

তথ্যসূত্রঃ সমকাল