মোবাইলে কথা বলায় বাড়তি শুল্ক প্রত্যাহার হচ্ছে

প্রকাশিত: ২:১৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০

আজ (সোমবার) জাতীয় সংসদে পাস হতে যাচ্ছে অর্থবিল। এতে মোবাইল ফোন সেবার ওপর বাড়তি সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার করে নিতে পারেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। যার ফলে এ সেবা গ্রহণে আগের মতোই ১০ শতাংশ সম্পূরক থাকছে। এছাড়াও প্রস্তাবিত বাজেটে ভ্যাটেও কিছু পরিবর্তন আনা হতে পারে।

২০২০-২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মোবাইল ফোন সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক ১০ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বাজেট ঘোষণার পরপরই তা কার্যকরও হয়েছে।

এর ফলে মোবাইল সেবায় ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ১ শতাংশ সারচার্জের সঙ্গে ১৫ শতাংশ সম্পূরক দিতে হচ্ছে গ্রাহকদের। এতে সব মিলিয়ে এখন ১০০ টাকা রিচার্জ করলে ৭৫ টাকা সেবা পাচ্ছেন তারা।

তবে করোনার সময় মোবাইল ফোন সেবার ওপর নির্ভরতা বাড়া সত্ত্বেও শুল্ক বাড়ানোয় গ্রাহক পর্যায়ে ক্ষোভ তৈরি হয়। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় থেকেও বাড়তি শুল্ক প্রত্যাহারের সুপারিশ করা হয়।

বাড়তি ভ্যাট দাবির ক্ষেত্রে আপিলের জন্য দাবিকৃত অর্থের ১০ শতাংশের পরিবর্তে ২০ শতাংশ জমা দেয়ার প্রস্তাব করা হয় বাজেটে। তবে ব্যবসায়ীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এই জমার পরিমাণ আগের মতো ১০ শতাংশই থাকতে পারে বলে জানা গেছে।

এবারের বাজেটে আমদানি পর্যায়ে ৬ দিনের মধ্যে বিল অব এন্ট্রি দাখিল করার বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়। প্রত্যাহার করা হতে পারে এই বাধ্যবাধকতার প্রস্তাবও।

১১ জুন ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ১৬ জুন থেকে নতুন বছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা শুরু হয়।