মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধীদের সংঘর্ষ, নিহত ২০

প্রকাশিত: ৩:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১
মিয়ানমারে সেনাশাসন বিরোধী বিক্ষোভে সেনাবাহিনীর আক্রমণের দৃশ্য। ছবি : রয়টার্স

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধী মিলিশিয়াদের মধ্যকার সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে। মিয়ানমারের সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে গণ-প্রতিরক্ষা যুদ্ধের ঘোষণা দেওয়ার পর এটিই সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনা। বার্তা সংস্থার রয়টার্সের খবরে এমনটি জানানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, মিয়ানমারের মগওয়ে অঞ্চলের মিন থর এলাকায় গত বৃহস্পতিবার থেকে ন্যাশনাল ইউনিটি গভর্নমেন্টের (এনইউজি) সদস্যদের সঙ্গে সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সংঘর্ষ শুরু হয় এবং পরদিন শুক্রবারও তা চলে।

মিন থর এলাকার ৪২ বছর বয়সী একজন বাসিন্দা সামরিক বাহিনীর কথা উল্লেখ করে রয়টার্সকে বলেন, ‘তারা গোলা ছুড়েছে, আমাদের গ্রামের অনেকগুলো বাড়ি পুড়ে গেছে।’ নিজের ১৭ বছরের সন্তানসহ মিলিশিয়া বাহিনীর ২০ সদস্য নিহতের কথা জানিয়েছেন তিনি।

রয়টার্সকে ওই ব্যক্তি বলেন, ‘আমার যা ছিল, সব হারিয়েছি, আমি পৃথিবী শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত আমি তাদের কোনোদিনই ক্ষমা করব না।’

সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত মিয়ানমার সরকারের সংসদ সদস্যদের নিয়ে এনইউজি’র ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট দুওয়া লাশি গত মঙ্গলবার ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিওবার্তায় সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে গণ প্রতিরক্ষা যুদ্ধের ঘোষণা দেন। এতে তিনি সামরিক বাহিনী ও সরকারের কর্মকর্তাদের এনইউজির পক্ষ নেওয়ার আহ্বান জানান।

মিয়ানমারের সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইংয়ের নেতৃত্বে গত ১‌ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারের পতন হয়। এরপর দেশটিতে সামরিক সরকারের আনুগত্য নাকচ করে আন্দোলন শুরু হয়। ওই আন্দোলন দমনে অস্ত্র প্রয়োগ করে সামরিক বাহিনী। এতে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়।