বিমান হামলায় ২৫৪ তালেবান নিহত : আফগান সরকার

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২, ২০২১

আফগানিস্তান ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যান্ড সিকিউরিটি ফোর্সের (এএনডিএসএফ) বিমান হামলায় ২৫৪ তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এসব হামলায় আহত হয়েছেন আরও ৯৭ তালেবান। রোববার এক টুইট বার্তায় এমন দাবি করেছে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

টুইটার পোস্টে বলা হয়েছে, শনিবার থেকে রোববার– ২৪ ঘণ্টায় দেশের গজনি, কান্দাহার, হেরাত, ফারাহ, সমানগান, জওজান, তাখার, হেলমান্দ, বাঘলান, কুন্দুজ, কাবুল ও কাপিসা প্রদেশে বিমান হামলা চালিয়েছে এএনডিএসএফ। এতে নিহত হয়েছেন তালেবানের ২৫৪ সদস্য। তা ছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৯৭ জন। খবর ইয়াহু নিউজের।

এদিকে একই সময়ে আফগানিস্তানের দ্বিতীয় প্রধান শহর হিসেবে পরিচিত কান্দাহারের তালেবান ঘাঁটিগুলোতে বিমান হামলা করেছে এএনডিএসএফ। ভয়াবহ সেই হামলায় ১০ জনেরও বেশি তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। রোববার পৃথক টুইট বার্তায় হামলার ভিডিও প্রকাশ করেছে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

গত প্রায় ৪৮ ঘণ্টা ধরে আফগানিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ তিন শহর হেরাত, লস্কর গাহ ও কান্দাহারে তুমুল লড়াই চলছে আফগান সামরিক বাহিনী এএনডিএসএফের সদস্য ও তালেবান বিদ্রোহীদের মধ্যে। তার মধ্যেই এই দুটি টুইট করল দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

রোববার আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক ছিল। ভার্চুয়াল সেই বৈঠকে বক্তব্য দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। বক্তব্যে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন, আগামী ছয় মাসের মধ্যে তালেবান সদস্যদের চূড়ান্তভাবে পরাজিত করা সম্ভব হবে।

এদিকে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন ও ন্যাটো সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ঘোষণায় তিনি বলেছিলেন, ২০২১ সালের ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে সব মার্কিন ও ন্যাটো সেনা সদস্যকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। পরে এই সময়সীমাকে আরও এগিয়ে ৩১ আগস্ট করা হয়।

বাইডেনের এই ঘোষণার পর থেকেই নতুন উদ্যমে আফগানিস্তান পুনরায় নিজেদের দখলে নিয়ে আসার অভিযান শুরু করে তালেবান।