বিজিবির আপত্তির মুখে সীমান্তে স্থাপনা তৈরি বন্ধ করল বিএসএফ

প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১

সাতক্ষীরার ভোমরা সীমান্তে আইন লঙ্ঘন করে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স বা ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) স্থাপনা তৈরির কাজ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) আপত্তির মুখে বন্ধ হয়ে গেছে। এ নিয়ে পরে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠকে বিষয়টির সমাধান হয়েছে।

সাতক্ষীরার সদর উপজেলার ভোমরা বন্দরের সন্নিকটে আজ শনিবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে ।

বিজিবির ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আল মাহমুদ জানান, ভোমরা ঘোজাডাঙ্গা ব্রিজ-সংলগ্ন ‘মেইন পিলার ৩’ থেকে ৪০ গজ দূরে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার বসিরহাট মহকুমার ঘোজাডাঙ্গা এলাকার ফুটবল ময়দানের কোনায় বিএসএফ একটি পাকা দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করেছিল। তারা সেখানে ইট, বালি ও সিমেন্টসহ নির্মাণ সামগ্রী জড়ো করে কাজ করছিল। বিষয়টি নজরে আসতেই বিজিবির ভোমরা কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার হারুনার রশীদ প্রতিবাদ করেন। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

সীমান্ত আইন অনুযায়ী জিরো পয়েন্ট থেকে ১৫০ গজের মধ্যে কোনো স্থাপনা তৈরি করা যাবে না বলে জানিয়ে দেয় বিজিবি জানায়। এরপরও বিএসএফ কাজ বন্ধ না করায় আজ সকাল সাড়ে ৯টায় জিরো পয়েন্টে ব্রিজের ওপর বিজিবির আহ্বানে অনুষ্ঠিত হয় পতাকা বৈঠক। এতে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিজিবির ভোমরা কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার হারুনার রশীদ। আর, ভারতের পক্ষে ছিলেন বিএসএফ-এর ১৫৩ ব্যাটালিয়নের ঘোজাডাঙ্গা ক্যাম্পের এসি মো. শহিদুল ইসলাম। প্রায় আধঘণ্টার এই বৈঠকে বিজিবির ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক টেলিফোনে উভয়পক্ষের সঙ্গে কথা বলেন।

পরে, বিএসএফ তাদের ভুল সিদ্ধান্ত বুঝতে পেরে দেয়াল তৈরির কাজ বন্ধ করে দেয়। এর পরপরই সেখানে থাকা নির্মাণ সামগ্রীও সরিয়ে নেয় বিএসএফ।

ভোমরা বিওপির সুবেদার হারুনার রশিদ বলেন, ‘দুপক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। বিএসএফ তাদের স্থাপনা তৈরির চেষ্টা বন্ধ করে দিয়েছে।’