বাংলাদেশ অরক্ষিত দেশগুলোর কণ্ঠস্বর হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২০

মার্শাল আইল্যান্ডের কাছ থেকে ২০২০-২২ মেয়াদে জলবায়ু পরিবর্তনে বিপন্ন দেশগুলোর জোট ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম (সিভিএফ) এবং অর্থমন্ত্রীদের গ্রুপ ভালনারেবল টুয়েন্টির (ভি২০) সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ।

ফোরামে অগ্রাধিকার কাজগুলো এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রযুক্তিগত ও আর্থিক সহায়তা দিয়ে সবাইকে অবদান রাখার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।

আজ মঙ্গলবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অরক্ষিত দেশগুলোর কণ্ঠস্বর হবে এবং সিভিএফ এবং ভি টুয়েন্টি এর সভাপতি থাকাকালীন বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে তাদের প্রভাব প্রচার করবে।’

সিভিএফ ট্রয়কা বৈঠকে ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই মন্তব্য করেন।

এ সময় মার্শাল আইল্যান্ডের পররাষ্ট্র ও বাণিজ্যমন্ত্রী ক্যাসেন এন নেমরা এবং ইথিওপিয়ার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন কমিশনার অধ্যাপক ড. ফেকাডু বিয়েন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য অগ্রাধিকারগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে একটি নতুন সিভিএফ এবং ভি২০ ট্রাস্ট তহবিল গঠন, জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কে নতুন বিশেষ সম্ভাবনা, সিভিএফের থিম্যাটিক দূত এবং জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য বিশেষ দূত নিয়োগ, জলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত মনিটরের তৃতীয় সংস্করণ প্রকাশে কাজ করবে।

ড. আবদুল মোমেন বলেন, ‘তারা লোকসান ও ক্ষয়ক্ষতি‘ এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া শরণার্থীদের বিষয়গুলো তুলে ধরবেন।