পানিতে ডুবে মারা যাওয়া ব্যক্তির গোসল, জানাযা ও কাফন-দাফনের বিধান

প্রকাশিত: ৫:৩৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০

লিখেছেনঃ মুহাদ্দিস জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলূম, নারায়ণগঞ্জ
গত সোমবার সকালে ঢাকা-চাঁদপুর রুটের লঞ্চ ‘ময়ূর-২’ মুন্সিগঞ্জ থেকে ঢাকার দিকে আসা ছোট লঞ্চ ‘মর্নিং বার্ড’কে ধাক্কা দিলে ৫০ জন যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি পানিতে ডুবে যায়। সারাদিন কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস, নৌপুলিশ, নৌবাহিনী যৌথ উদ্ধার অভিযান চালিয়ে একে একে ৩২টি মরদেহ উদ্ধার করে। অভিযানের প্রায় শেষ দিকে ১৩ ঘণ্টা পর ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার করার সময় লঞ্চের ভেতরে আটকা পড়ে বেঁচে থাকা সুমন ব্যাপারীকে উদ্ধারের তথ্য জানায় ফায়ার সার্ভিস। এ দুর্ঘটনার জন্য কারা দায়ী। আবার লাশ খুঁজে পাওয়া যায় ১৩ ঘণ্টা পর এতে আসলে কারো দায়িত্বহীনতা ও অযোগ্যতা প্রকাশ পায় কি না আমি সেদিক নিয়েও এখানে আলোচনা করব না।

পানিতে ডুবে মারা গেলে সে ব্যক্তির গোসল, কাফন-দাফন ও জানাযার কি বিধান ইসলামে রয়েছে সে দিকটি নিয়ে আলোচনা করব- যেহেতু আমাদের দেশে এসব ঘটনা প্রায়ই ঘটে থাকে।

যেসব লোক পানিতে পড়ে মারা যায় তাদের শরীর পাক থাকা সত্ত্বেও জীবিত ব্যক্তিদের থেকে গোসল দেয়ার বিধান রহিত হবে না। এমনিভাবে বৃষ্টি যদি মৃত ব্যক্তিকে গোসল করিয়ে দেয় তারপরও তাকে গোসল দিতে হবে। কেননা গোসল দেওয়ার কাজটা জীবিত ব্যক্তিদের দ্বারা সম্পাদিত হয়নি, সুতরাং দ্বিতীয়বার গোসল না দিলেও এমতাবস্থায় ঐ মৃতের জানাযা পড়া যাবে, কিন্তু জীবিত ব্যক্তিরা গোনাহগার হবে। হাঁ পানি থেকে উঠানোর সময় যদি একবার অথবা দু’বার অথবা তিনবার গোসলের নিয়তে নেড়ে উঠায় তাহলে তাদের দায়িত্ব আদায় হয়ে যাবে। (রদ্দুল মুহতার ২/১৯৯; ফাতাওয়া আলমগীরী ১/১৫৮; আলবাহরুর রায়েক ২/১৮৭)।

লাশ ফুলে গেলে: যদি লাশ পানিতে ডুবে যাওয়া, কাফন-দাফনে দেরি হওয়া অথবা অন্য কোনো কারণে যদি এতটুকু ফুলে যায় যে, হাত লাগানোর উপযুক্ত না থাকে অর্থাৎ গোসলের জন্য হাত লাগানোর দ্বারা লাশ ফেটে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে তাহলে এ ধরনের নরম লাশে শুধু পানি ঢেলে দেওয়াই যথেষ্ট। কেননা গোসলে ডলা ইত্যাদি জরুরি নয়। অতঃপর নিয়ম মতো কাফন দিয়ে জানাযার নামায পড়ে দাফন করা হবে। তবে জানাযার নামায পড়ার পূর্বেই যদি লাশ ফেটে যায় তাহলে নামায পড়া ছাড়াই দাফন করে দিতে হবে। (ফাতাওয়া তাতারখানিয়া ২/১৩৬; ফাতাওয়া আলমগীরী ১/১৫৮; বাদায়েউস সানায়ে ২/২৯)

লাশের বেশির ভাগ পাওয়া গেলে: যদি কোনো মৃতের অর্ধাংশের বেশি পাওয়া যায় তার গোসল দেওয়া হবে এবং জানাযা পড়া হবে। এমনিভাবে মাথাসহ অর্ধেক পাওয়া গেলেও তার গোসল দেওয়া হবে এবং জানাযা পড়া হবে। যদি শুধু মাথা পাওয়া যায় তবে দাফন করা হবে; গোসল এবং জানাযা লাগবে না। (ফাতাওয়া আলমগীরী ১/১৫৯; আদ্দুররুল মুখতার ২/১৯৯)

লাশ দুর্গন্ধযুক্ত হয়ে গেলে: লাশ যদি দুর্গন্ধযুক্ত হয়ে যায়, তবে ফেটে না যায় তাহলে তার জানাযার নামায পড়া হবে। (ফাতাওয়া আলমগীরী ১/১৬৩; বাদায়েউস সানায়ে ২/৪৭; ফাতাওয়া দারুল উলূম ৫/৫৩৫)

লাশ ফেটে গেলে: লাশ ফুলে গিয়ে ফেটে গেলে তার জানাযার নামায রহিত হয়ে যাবে, তার জানাযা পড়া হবে না। -মারাকিল ফালাহ ১/৪১০; ইমদাদুল আহকাম ১/৮৩০ (লেখকের কাফন-দাফনের শরয়ী বিধান অবলম্বনে রচিত)।