দেশে তীব্র বন্যার আশংকা: ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপরে

প্রকাশিত: ৩:১২ পূর্বাহ্ণ, জুন ২১, ২০২০

ভারি বৃষ্টি ও উজানের ঢলে ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে নীলফামারীর ডিমলা, কুড়িগ্রামের উলিপুর ও লালমনিরহাটের হাতীবান্ধার চরাঞ্চলে বন্যা ও তীব্র ভাঙন দেখা দিয়েছে। উলিপুরে অনেক পরিবারের বসতভিটা ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকিতে রয়েছে আরও শতাধিক বাড়িঘর।

ডিমলা (নীলফামারী): উজানের ঢল সামাল দিতে খুলে রাখা হয়েছে তিস্তা ব্যারাজের ৪৪টি জলকপাট। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তিস্তার বন্যায় চরাঞ্চলের পাঁচ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। অনেকের বসতঘরে হাঁটু পানি।

উলিপুর (কুড়িগ্রাম): ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দেখা দিয়েছে তীব্র নদীভাঙন। কয়েক দিনের ভাঙনে বসতভিটার পাশাপাশি ফসলি জমিও নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। স্থানীয়রা বাঁশের খুঁটি গেড়ে ও গাছের ডাল ফেলে পাইলিং করে ভাঙন রোধের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

লালমনিরহাট: শুক্রবার মধ্য রাতে হঠাৎ বাড়তে থাকে তিস্তার পানি। শনিবার সকাল ৬টায় তা বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়।

উপজেলা ত্রাণ ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) ফেরদৌস আলম বলেন, পানিবন্দি পরিবারগুলোর খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যানকে তাদের তালিকা করতে বলা হয়েছে। তালিকা পেলে বরাদ্দ নিয়ে ত্রাণ বিতরণ করা হবে।