দিল্লিতে জুলাইয়ে করোনা আক্রান্ত হবে সাড়ে ৫ লাখ, আশঙ্কা আপ সরকারের

আশফাক ইমরান

প্রকাশিত: ৫:০১ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২০

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে প্রতি ১২-১৩ দিন অন্তর করোনা সংক্রমণ দ্বিগুণ হচ্ছে। আর এই হারের উপর ভিত্তি করেই দিল্লির আম আদমি সরকারের উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া মঙ্গলবার বলেছেন, ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দিল্লিতে সাড়ে ৫ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন। দিল্লি সরকারের ধারণা, ১৫ জুনের মধ্যে ৪৪ হাজার, ৩০ জুনের মধ্যে ১ লক্ষ এবং ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে সোয়া ২ লক্ষ মানুষের মধ্যে সংক্রমণ হবে। তবে সিসোদিয়া জানিয়েছেন, দিল্লিতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমনের ঘটনা ঘটেনি। তবে দিল্লিতে সংক্রমণের সংখ্যা যে উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে তাতে শঙ্কিত বিশেষজ্ঞরা। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকেও আইসোলেশনে যেতে হয়েছে। আসন্ন সপ্তাহগুলিতে দিল্লিতে চরম হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়বে আশঙ্কা করে মণীশ সিসোদিয়া বলেছেন, দিল্লির সমস্ত হাসপাতালের শয্যার ৫০ শতাংশই সাধারণত বাইরে থেকে চিকিৎসার জন্য আসা ব্যক্তিদের দখলে রয়েছে। কিন্তু আগামীতে হাসপাতালের শয্যার বিশাল চাহিদা তৈরি হবে।

মঙ্গলবার মণীশ সিসোদিয়া উপ-রাজ্যপাল অনিল বৈজাল এবং ঊর্ধ্বতন কেন্দ্রীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পরে জানিয়েছেন, আগামী জুলাইয়ে দিল্লিতে ৮০ হাজার শয্যার প্রয়োজন হবে। এজন্যই শহরের বাসিন্দাদের জন্য কেন্দ্র কর্তৃক পরিচালিত হাসপাতালগুলি বাদ দিয়ে অন্য হাসপাতালগুলির শয্যা সংরক্ষণ নিয়ে দিল্লি সরকার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা খারিজ করে দিয়েছেন উপরাজ্যপাল। সেই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচেনার জন্যই অনিল বৈজালের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। কিন্তু উপরাজ্যপাল তার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে অস্বীকার করেছেন। এদিকে, মঙ্গলবার দিল্লিতে ২২৮৯ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। ফলে এ পর্যন্ত রাজ্যটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৯ হাজার ৯৪৩ জন। ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে ১১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে রাজ্যে করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৮৭৪ জনের। অন্যদিকে ভারতে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯৮৭ জন। মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ৬৬ হাজার ৫৯৮ জন। এ পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৪৬৬ জনের।