তিস্তার পানি কমলেও ভাঙ্গন আতঙ্কে দিশেহারা মানুষ

প্রকাশিত: ২:১৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২০
পানি কমলেও ভাঙ্গন আতঙ্কে দিশেহারা মানুষ

তিস্তার পানি কমতে শুরু করলেও ভাঙ্গন আতঙ্কে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মানুষ। এরই মধ্যে বন্যা প্রটেকশন ওয়ালের তিনটি অংশে প্রায় ১৩০ মিটার অংশ ধসে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিভিন্নস্থানে বাড়িঘর বসতভিটা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। বুধবার সন্ধায় গঙ্গাচড়ার আলমবিদিতর ইউনিয়নের পাইকান আকবরিয়া ইউসুফিয়া ডিগ্রী মাদরাসার সামনে তিস্তার স্রোতে ধসে পড়েছে ৬০ মিটার বন্যা প্রটেকশন ওয়াল। এতে ওই মাদরাসাসহ পাশের পাইকান জুম্মাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাউদপাড়া আলিম মাদরাসা ও বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ ও হাজার খানেক পরিবার ভাঙ্গন হুমকির মুখে পড়েছে।

পরিস্থিতি সামলাতে সেখানে জিওব্যাগ ফেলতে শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবি)। এছাড়াও ওই ইউনিয়নের গাটুপাড়ায় ৪০ ও বেরাতি পাড়ায় ৩০ মিটার এলাকার বন্যা প্রটেকশন ওয়ালের সিসি ব্লক ধসে গেছে।

অন্যদিকে নোহালী ইউনিয়নের ফোটামারি টি হেড গ্রোয়েন ও আলসিয়া পাড়ায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ মুল বাঁধ ভাঙ্গনের মুখে পড়ায় সেখানেও জিও ব্যাগে বালু ফেলছে পাউবি। এছাড়া- গঙ্গাচড়া, কাউনিয়া, ও পীরগাছা উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের প্রায় ১৫০টি বাড়িঘর ও শতশত একর জমি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ায় গজঘণ্টা ছালাপাক থেকে গাউছিয়া বাজার এবং পুর্ব রমাকাণ্ড থেকে গাউছিয়া বাজার যাওয়ার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন আছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন কাজ ভালো না হওয়ায় এই ভাঙ্গন।