ঢাকা থেকে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি পেল এমিরেটস

আশফাক ইমরান

প্রকাশিত: ৩:০৬ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিশ্বব্যাপী নজিরবিহীন ক্ষতি গুনতে হচ্ছে বিমান চলাচল শিল্পকে।

আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, করোনাভাইরাস মহামারির জন্য ঘোষিত ঐতিহাসিক এ স্থবিরতার সময়ে ২০২০ সালে বিশ্বব্যাপী আট হাজার ৪৩০ কোটি ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হবে বিমান পরিবহন শিল্প।

কিছু কিছু এয়ারলাইন্স মহামারি চলাকালীন আটকা পড়া যাত্রী এবং চিকিৎসা সরঞ্জাম বহন করার জন্য বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করলেও পুরো খাতটি দুই মাস ধরে পিছিয়ে পড়তে বাধ্য হয়েছে।

যাই হোক, দীর্ঘ দিনের পিছিয়ে পড়ার পর, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) আগামী ২১ জুন থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থা এমিরেটস এয়ারলাইন্সকে ঢাকা থেকে ফ্লাইট পরিচালনায় অনুমতি দিয়েছে।

বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, আগামী ২১ জুন থেকে দুবাই-ঢাকা রুটে প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে তিনটি ফ্লাইট শুরু করবে তারা। ঢাকা থেকে ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আরো দুটি এয়ারলাইন্স আবেদন করেছে বলেও জানান তিনি।

মফিদুর রহমান বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে ইউএইতে বাংলাদেশি যাত্রী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকায় কেবল ঢাকা-দুবাই রুটে ট্রানজিট যাত্রী পরিবহন করবে এমিরেটস এয়ারলাইন্স। তবে তাদের দেশের (ইউএইতে) নাগরিক আসা যাওয়া করতে পারবে।

এ মুহূর্তে দোহা ও ইউএইতে কোনো বাংলাদেশি নাগরিক ঢুকতে না পারলেও ট্রানজিট ফ্লাইটে অন্য যেকোনো দেশে বাংলাদেশি নাগরিক যেতে পারবেন, বলেন মফিদুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের নাগরিক যেন ইউএইতে ঢুকতে পারে সে বিষয়ে তাদের এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন এবং দোহাতেও যাতে বাংলাদেশি নাগরিক ঢুকতে পারে সে বিষয়ে চিঠি দিয়েছি।’

এদিকে, ১৬ জুন থেকে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে কাতার এয়ারওয়েজ। মঙ্গলবার কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট ঢাকা থেকে দোহাতে এবং দোহা থেকে একটি ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসেছে।