গোলান মালভূমিতে অবৈধ বসতি স্থাপন করার ঘোষণা ইসরায়েলের

প্রকাশিত: ৩:০৯ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২০

ফিলিস্তিনের অধিকৃত গোলান মালভূমিতে নতুন করে অবৈধ বসতি স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দখলদার রাষ্ট্র ইসরায়েল।

গত রোববার (১৪ জুন) দেশটির বসতি বিষয়ক মন্ত্রী জিপি হোটোভ্যালি জানান, তার মন্ত্রণালয় এরই মধ্যে ‘রামাত ট্রাম্প’ প্রকল্পের কাজ শুরুর প্রস্তুতি নিতে যাচ্ছে। হিব্রু ভাষায় রামাত মানে মালভূমি। আর ‘রামাত ট্রাম্প’ মানে ‘ট্রাম্প মালভূমি’। গোলান মালভূমিকে ইসরায়েল ইতোমধ্যে ‘ট্রাম্প মালভূমি’ নাম দিয়ে প্রকল্প শুরু করতে যাচ্ছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানিয়েছে, আবাসন প্রকল্পের অংশ হিসেবে প্রাথমিক পর্যায়ে ৩০০ পরিবারের বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। ১৯৬৭ সালের জুনে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের সময় সিরীয় ভূখণ্ড গোলান মালভূমি দখল করে নেয় ইসরায়েল। পরে সেখান থেকে সিরিয়ান আরব বাসিন্দাদের অধিকাংশই পালিয়ে যায়।

যদিও ১৯৭৩ সালে এটি পুনর্দখলের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় সিরিয়া। ১৯৮১ সালের ৪ ডিসেম্বর একতরফাভাবে ওই এলাকাকে নিজেদের অংশ বলে ঘোষণা করে ইসরায়েল। তবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তার স্বীকৃতি দেয়নি।

২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের গ্রহণ করা এক প্রস্তাবে ইসরায়েলকে পূর্ব জেরুজালেম ও গোলান মালভূমিসহ ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে প্রাকৃতিক সম্পদের শোষণ বন্ধ করতে বলা হয়।

তবে গত বছরের মার্চে অধিকৃত গোলান মালভূমিকে ইসরায়েলের সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে পাশে রেখেই ওই স্বীকৃতিতে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প।