কোরবানীর ঈদে গোবাদিপশু বিক্রি নিয়ে চিন্তা

প্রকাশিত: ১:৪১ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০
প্রতীকী ছবি

করোনা মহামারীর মধ্যে কোরবানীর ঈদে গোবাদিপশু বিক্রি নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন টাঙ্গাইলের খামারিরা।

এবারের হাটে ক্রেতা কমে যাওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। যার প্রভাব পড়বে পশুর বিক্রি মূল্যে। তাই আশানুরূপ দাম পাওয়া যাবে কি না- তা নিয়েও ভাবছেন খামারিরা।

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার মনহারা গ্রামের দরিদ্র কৃষক সুজনের স্ত্রী এলিজা বেগম। সংসারের কিছুটা ভার লাঘবের জন্য প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ঈদকে সামনে রেখেছেন দুটি দেশি জাতের গরু। গেলো বছর এই সময়টাতে ক্রেতাদের আনাগোনা থাকলেও এবার তেমনটা নেই। তাই লোকসানের শঙ্কা ভর করেছে মনে। এলিজার মতো জেলার সবচেয়ে বড় গরুর খামারিরাও গরু নিয়ে আছেন একইরকম শঙ্কায়।

জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের তথ্যমতে করোনার কারণে শুধু টাঙ্গাইল জেলাতেই প্রায় ১৫ হাজার ছোট-বড় খামারির এবার গুনতে হবে কয়েক কোটি টাকার লোকসান। তবে ভারত থেকে গরু না আসলে লোকসানের শঙ্কা কমে যাবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবু সায়েদ সরকার।

জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের হিসাবে টাঙ্গাইলে কোরবানিযোগ্য প্রায় ২ লাখেরও বেশি গবাদিপশু আছে।