কান্দাহার বিমানবন্দরে তালেবানের রকেট হামলা, সব ফ্লাইট বাতিল

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১, ২০২১

আফগানিস্তানের কান্দাহার বিমানবন্দরে অন্তত তিনটি রকেট আঘাত হেনেছে। গতকাল শনিবার রাতে তালেবান যোদ্ধারা এ হামলা চালিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে সংগঠনটি।

আজ রোববার তালেবান মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘কান্দাহার বিমানবন্দরকে লক্ষ্য করে আমরা হামলা করেছি, কারণ শত্রুরা আমাদের ওপর বিমান হামলা চালানোর জন্য এটিকে কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করত।’

এদিকে, বিমানবন্দরটির প্রধান মাসুদ পশতুন বলেন, শনিবার রাতে বিমানবন্দর লক্ষ্য করে তিনটি রকেট ছোড়া হয়। এর মধ্যে দুটি রকেট বিমানবন্দরের রানওয়েতে এসে পড়েছে। এ কারণে এই বিমানবন্দর থেকে সব ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত রানওয়ে মেরামতের কাজ চলছে বলে জানান কান্দাহার বিমানবন্দরের প্রধান। আজ রোববার দিনের শেষ ভাগে বিমানবন্দরের কার্যক্রম আবার শুরু হতে পারে বলে আশা করছে কর্তৃপক্ষ।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ কান্দাহার বিমানবন্দরে রকেট হামলা হওয়ার তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

কান্দাহারসহ আফগানিস্তানের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ শহরের নিয়ন্ত্রণ নিতে তালেবান হামলা চালিয়েছে বলে আজ বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়। বাকি দুটি শহর হলো হেরাত ও লশকর গা। এই শহরগুলো ঘিরে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের লড়াই জোরদার হচ্ছে। আফগানিস্তানের সরকারি বাহিনীর কাছ থেকে এই তিন শহরের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের দখলে নিতে চায় তালেবান।

কান্দাহারের এক সাংসদ বলেছেন, তালেবানের হাতে শহরটি পতন হওয়ার গুরুতর ঝুঁকি রয়েছে। শহরের হাজারো অধিবাসী এরই মধ্যে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। শহরে মানবিক বিপর্যয় দেখা দিতে পারে।

এ ছাড়া একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, কান্দাহার প্রদেশের রাজধানী কান্দাহার তালেবানের দখলে যাওয়ার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কান্দাহার আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। কান্দাহারে বিমানঘাঁটি রয়েছে। তালেবানের হাত থেকে কান্দাহার রক্ষায় এই বিমানঘাঁটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত। কেননা এই বিমানঘাঁটির মাধ্যমেই তালেবানবিরোধী লড়াইয়ে সরকারি বাহিনী নানা সাহায্য-সহযোগিতা পেয়ে থাকে।