করোনা পরীক্ষার ফি কমেছে

প্রকাশিত: ৩:৩৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ফি ২০০ টাকা থেকে কমিয়ে ১০০ টাকা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়। আজ বুধবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে করোনা পরীক্ষার ফি কমানোর ঘোষণা দেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সর্দি-কাশিসহ করোনা উপসর্গ দেখা দিলেই সবাইকে পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া বা না হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে বারবার অনুরোধ করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষ যাতে করোনা পরীক্ষা করতে পারে, এ জন্যই মন্ত্রণালয় ফি কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বাড়িতে বসেও ফোন করে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা রেখেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এ ক্ষেত্রে বাড়িতে গিয়ে নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে ৩০০ টাকা ফি দিতে হবে বলে জানান জাহিদ মালেক।

গত ২৯ জুন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-১ অধিশাখা থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করা হয়। ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছিল, আরটি-পিসিআর টেস্টের মাধ্যমে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নির্ণয় করা হয়। এ পরীক্ষা সরকার বিনামূল্যে করার সুযোগ দেওয়ার ফলে কোনো উপসর্গ ছাড়াই অধিকাংশ মানুষ এ পরীক্ষা করানোর সুযোগ গ্রহণ করছে। এ অবস্থায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য অপ্রয়োজনীয় টেস্ট পরিহার করার লক্ষ্যে অর্থ বিভাগের গত ১৫ জুনের এক স্মারকের সম্মতির পরিপ্রেক্ষিতে আরটি-পিসিআর পরীক্ষার জন্য ২০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত ফি নির্ধারণ করা হলো। আজ সরকার এ ফি আবার কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এবং সাত লাখ ৮৪ হাজার ৩৫৩ জন রোগী মারা গেছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।