উত্তর ঢাকার ৬৭ ভাগ বাড়িই এডিস মশার প্রজনন উপযোগী

প্রকাশিত: ২:২৭ পূর্বাহ্ণ, জুন ২১, ২০২০
প্রতীকী ছবি

উত্তর ঢাকার ৬৭ ভাগ বাড়িই এডিস মশার প্রজনন উপযোগী। এক দশমিক দুই শতাংশ বাড়িতে মিলেছে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ার বাহক এই মশার লার্ভা। আর সবচেয়ে বেশি লার্ভা মিলেছে নির্মাণাধীন ভবনে। গত ১০ দিনে একারণে বিভিন্ন বাসা-প্রতিষ্ঠানকে করা হয়েছে ২৪ লাখ টাকা জরিমানা। আর উত্তর সিটির হাসপাতালে অভিযান শুরু হচ্ছে আজ।

মিরপুরে কয়েকদিনের বৃষ্টির পানিতে জন্মাচ্ছে মশা। পরিষ্কারের উদ্যোগ নেয়নি স্থানীয় বা সিটি করপোরেশনের কেউ।

এবছর এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত ৩শো ২০ জন। বর্ষার শুরুতেই বেড়েছে এডিসের উপদ্রব। তাই করোনার সঙ্গে যোগ হয়েছে ডেঙ্গুর আতঙ্ক।

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে মাসে ১০ দিন অভিযানে যাচ্ছে উত্তর সিটি করপোরেশন। তাদের স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, প্রথম ধাপে ৫৪ ওয়ার্ডের এক লাখ ৩৪ হাজার ১৩৫টি ভবন-স্থাপনায় গেছে তারা। এসবের ৮৯ হাজার ৬২৬টি ভবন-স্থাপনায় দেখা গেছে প্রজননের উপযুক্ত পরিবেশ।

কীটত্বত্তবিদেরা বলছেন, শুধু অভিযান নয়, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওষুধ দিতে হবে নিয়মিত, রাখতে হবে পর্যাপ্ত মজুদও।

এদিকে যেসব বাড়ি-স্থাপনায় এডিসের লার্ভা বা প্রজনন উপযোগী পরিবেশ রয়েছে ছবিসহ তা তাৎক্ষণিকভাবে রাখা হচ্ছে একটি বিশেষ অ্যাপে। এই ডাটাবেস অনুযায়ী পরে চালানো হবে তদারকি।

ডেঙ্গু এড়াতে নির্মাণাধীন ভবন, বাড়ি ও স্থাপনা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে আবারও নগরবাসীর সহায়তা চেয়েছে ডিএনসিসি।