ঈদের বাড়তি আনন্দ ঈদ সালামি

প্রকাশিত: ৫:২০ অপরাহ্ণ, মে ২৬, ২০২০

বাংলাদেশসহ গোটা ভারতীয় উপমহাদেশে যুগ যুগ ধরে চলে আসছে ঈদ সালামির প্রচলন। ঈদের দিনে সালামি এক বাড়তি আনন্দ যোগ করে থাকে। বয়সভেদে আবাল বৃদ্ধ বণিতা সবাই ঈদের দিন তাদের গুরুজনের কাছে সালামির আবদার করে থাকেন। বাংলাদেশসহ প্রায় সব জায়গায় ঈদ সালামি হিসেবে
সাধারণত নতুন টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। তবে দেশে এবার বাজারে আসা নতুন ২০০ টাকার নোটের প্রতি সবার আগ্রহ ছিলো চোখে পড়ার মতো।

বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনার জীবাণু কাগজের নোট এবং পয়সার উপরে থাকে। তাই প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তি পেতে  থেকে ঈদে কুশল বিনিময় এবং সালামি গ্রহণের ব্যাপারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সকলের কাছে অনুরোধ করেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, টাকাকে জীবাণুমুক্ত করার বেশ কয়েকটি সহজ পদ্ধতি রয়েছে। প্রথমে সাবান বা ডিশ ওয়াশিং লিকুইডের মধ্যে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখতে হবে। তাতেই জীবাণু মুক্ত হবে কাগজের নোট। তবে খেয়াল রাখতে হবে যে, টাকার ওপর কোনোভাবেই ব্লিচিং পাউডার, বেকিং সোডা ব্যবহার করা  যাবে না।

সূত্রমতে, অস্ট্রেলিয়ার অর্থনীতিবিদগণ বলছেন তারা প্রতিদিনই সাবান পানি দিয়ে তাদের কাগজের নোট পরিষ্কার করেন। দেশটির অনেক রেঁস্তোরায় ব্যাংক নোট নিষিদ্ধ করা হয়েছে।  যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ বিষয়ে এখনো কোনো সতর্কতা জারি করেনি তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আগে থেকেই সচেতন থাকা উচিত।

এরই মধ্যে থাইল্যান্ডের  একটি কেন্দ্রীয় ব্যাংক দোকানদার ও খুচরা ব্যবসায়ীদের কাগজের নোট পরিষ্কার করার উপদেশ দিয়েছেন।  কিভাবে পুরোপুরি জীবাণু মুক্ত করা যায় সে বুদ্ধি দিয়েছেন তারা। সাবান পানি বা হ্যান্ডওয়াশের সাহায্যে কাগজের নোট পরিষ্কারের কথা বলছেন তারা। তবে বেকিং করা, ব্লিচিং পাউডার ব্যবহার করা বা সিদ্ধ করার ব্যপারে বারবার না করা হয়েছে।