ইতালিসহ ৩ দেশে বাংলাদেশের ফ্লাইটে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত: ৫:২৩ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

করোনার প্রকোপ না কাটলেও খুলছে ইউরোপ-এশিয়ার অনেক দেশের আকাশপথ। তবে সেসব দেশে ঢোকার পথ বন্ধ হচ্ছে বাংলাদেশের জন্য। করোনামুক্তের সনদ থাকার পরও বিদেশে সংক্রমণ ধরা পড়ছে বাংলাদেশিদের। এতে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়ার পর ফ্লাইটে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইতালি। এ অবস্থায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিদেশে ভাবমূর্তি সংকট পড়ছে দেশ, যা ফেরানো না গেলে ভুগতে হবে দীর্ঘ মেয়াদে।

৬ জুন ঢাকা থেকে বিশেষ ফ্লাইটের ইতালি যান ২৭৬ বাংলাদেশি যাত্রী। পরে রোমে তাদের মধ্যে ৩৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। অথচ তারা সবাই করোনামুক্ত সনদ নিয়েই দেশ ছেড়েছেন। এর পর পরই ঢাকা থেকে যাওয়া ফ্লাইটের ওপর এক সপ্তাহের নিষেধাজ্ঞা দেয় ইতালি। প্রশ্ন ওঠে সনদের মান নিয়ে।

এরপরও বুধবার ১২৫ বাংলাদেশিকে নিয়ে রোম যায় কাতার এয়ারের ফ্লাইট। তবে কোনো যাত্রীকেই দেশটিতে ঢুকতে দেয় নি সরকার। উপরন্তু ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ানো হয় ফ্লাইট নিষিদ্ধের মেয়াদ। তবে এ ঘটনায় কাতার এয়ারের দায় দেখছেন এভিয়েশন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে শাহজালাল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, যাত্রীর করোনা পরীক্ষার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা তাদের নেই। আর এয়ারলাইন্সগুলো বলছে, করোনামুক্তির সনদ থাকার পরেই যাত্রীদের উড়োজাহাজে ওঠার অনুমতি দেয়া হয়। আর সনদ যাচাইয়ের সক্ষমতা তাদের নেই।
এ ঘটনায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নের বিষয়টি মেনে নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ফ্লাইট স্বাভাবিক করতে কূটনৈতিক তৎপরতা অব্যাহত রাখা হয়েছে।

এর আগে, বাংলাদেশি যাত্রীদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ায় ঢাকা থেকে বিশেষ ফ্লাইট চলাচল স্থগিত করে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া।