ইউনাইটেড হাসপাতালের শীর্ষ ৪ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত: ৮:২৯ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২০

গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের শীর্ষ কর্মকর্তাদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়েছে গুলশান বিভাগ পুলিশ। বেসরকারি এ হাসপাতালটিতে অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় এ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। ঘটনায় কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও গাফিলতি পেয়েছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত কমিটি।

শীর্ষ চার কর্মকর্তারা হলেন- মোঃ হাসান মাহমুদ রাজা, চেয়ারম্যান, মোঃ ফরিদুর রহমান খান, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, মোহাম্মদ ফাইজুর রহমান, সিইও, ডাঃ আবু সাঈদ এমএম রহমান, ডিরেক্টর-চীফ ক্লিনিক্যাল গভার্নেন্স।

নিহত এক রোগীর আত্মীয় ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যান, এমডি, সিইও, পরিচালক, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক-নার্স ও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় অবহেলা জনিত ও তাচ্ছিল্য পূর্ণ কাজের কারণে রোগীদের মৃত্যুর অভিযোগ আনা হয়।

পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, প্রভাবশালী বলে কাউকে রেহাই দেওয়া হবে না, অপরাধ ও দায়িত্বে অবহেলা করলে আইনের মুখোমুখি হতে হবে।

করোনাভাইরাস রোগীদের জন্য হাসপাতাল ভবনের সামনে তাঁবু টাঙিয়ে অস্থায়ী একটি ইউনিট করেছিল ইউনাইটেড কর্তৃপক্ষ। গত ২৭ মে রাত পৌনে ১০টার দিকে ওই আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লেগে ভারনন এ্যান্থনী (৭৪), মো. মাহবুব (৫০), মো. মনির হোসেন (৭৫), খোদেজা বেগম (৭০) ও রিয়াজ উল আলম (৪৫) নামে পাঁচজন মারা যান। এদের মধ্যে তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।