ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

প্রকাশিত: ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০

অগ্নিকাণ্ডে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যান, এমডি, প্রধান নির্বাহী, পরিচালক, দায়িত্বরত ডাক্তার নার্স, ও সেফটি সিকিউরিটির দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নিহত একজনের স্বজন। নিহত এন্থনী পলের মেয়ের স্বামী রোনাল্ড নিকি গোমেজ রাতে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা দায়ের করেন।

গুলশান থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা এস আই তোফাজ্জল হোসেন বলেন, বুধবার (৩জুন) রাত ৯টার দিকে সিইও, এমডি, চিকিৎসক ও নার্সসহ ৬ পদের নাম উল্লেখ করে পুরো কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার বাদি রোনাল্ড রিকি গোমেজ জানান, ঘটনার দিন তিনি চাক্ষুস দেখেছেন ইউনাইটেডের কর্মকর্তাদের অবহেলা। দুইবার করোনা টেস্ট নেগেটিভ আসার পরও তার স্বজনকে ইচ্ছাকৃতভাবে রাখা হয় আইসোলেশন ইউনিটে। চিকিৎসক ও প্রশাসকদের স্বেচ্ছাচারিতায় আরো কয়জন নন-কোভিড রোগীকে সেখানে রাখা ছিল। অথচ তাদের করোনা নেগেটিভ ছিল। তাই এই ঘটনা ও ৫জন নিহতের পেছনে সম্পূর্ন দায় ইউনাইটেড হাসপাতালের। এই কয়েকদিন পরিবারের সবাই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত থাকার কারণে মামলা করতে কয়েকদিন দেরি হয়েছে বলে জানান রোনাল্ড। মামলার এজাহারে এন্থনী পলকে হাসপাতালে ভর্তির পর যা যা প্রত্যক্ষ করেছেন সবই উল্লেখ করেছেন।

গুলশান বিভাগের ডিসি সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানান, মামলাটি করেছেন নিহত অ্যান্থনি ভের্নন পলের মেয়ের জামাই রোনাল্ড মিকি গোমেজ। মামলায় ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যান, এমডি, সিইও, পরিচালক, করোনা ইউনিটে সে সময় কর্মরত ডাক্তার-নার্স, সেফটি ও সিকিউরিটি কর্মকর্তাদের আসামি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ মে ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে (মূল ভবনের বাইরে স্থাপিত) আগুন লাগে। এ ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়।

সূত্র কৃতজ্ঞতা- গণমাধ্যম