অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

প্রকাশিত: ২:১৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২১
প্রতীকী ছবি

টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ায়র বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ছয়টায় প্রথম ম্যাচে মাঠে নামছে দুদল। এ ম্যাচে বেশ কয়েক জন সিনিয়র ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। ইনজুরির কারণে শঙ্কা ছিল সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়েও।

তবে টিমসূত্র থেকে জানা গেছে, এ দুজন অজিদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে থাকছেন।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে ইনজুরিতে পড়েন সাকিব ও মুস্তাফিজ। তাদের ইনজুরি গুরুতর না হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরু থেকেই সেরা ক্রিকেটাদের পাচ্ছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। জিম্বাবুয়ে সিরিজে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলা তাসকিন আহমেদ ও সাইফউদ্দিন বাদ পড়েছেন সেরা একাদশ থেকে। তাদের দু’জনের জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন স্পিন অলরাউন্ডার মাহাদী হাসান ও পেসার শরিফুল ইসলাম।

অজিদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অজি বধের মিশনে বাংলাদেশের ইনিংস ওপেন করার সম্ভাবনা বেশি নাঈম শেখ ও সৌম্য সরকারের। জুলাই মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতেও এই দুজনই তামিম বিহীন বাংলাদেশের ইনিংস ওপেন করেছিলেন। এর মধ্য প্রথম ম্যাচে তারা গড়েন ১০২ রানের বড় এক জুটি। দুজন পৌঁছেন ব্যক্তিগত অর্ধশতকে।

সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পর বাংলাদেশের মিডল অর্ডারে বড় ভরসার নাম হতে পারেন শামীম পাটোয়ারি ও নুরুল হাসানরা। মিরপুরে মঙ্গলবারের ম্যাচে শেষ হাসি হাসবে কারা? বাংলাদেশই প্রথম হারের স্বাদ দিতে পারবে সফরকারীদের?

পরিসংখ্যানই বা কি বলে? বিগত পাঁচ ম্যাচের হিসাবে কিছুটা সুবিধাজনক অবস্থানে বাংলাদেশ, তিন ম্যাচে হারের বিপরীতে রিয়াদ বাহিনীর জয় দুটিতে। অস্ট্রেলিয়া পাঁচ ম্যাচের মধ্য হেরেছে চারটিতে, জয় মাত্র একটি।

বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া সর্বশেষ কোনো ট-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হয় ২০১৬ সালে, টো-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। সেবার ম্যাচসেরা হন অ্যাডাম জাম্পা। প্রথম ম্যাচেও ভালো কিছু করার সুযোগ তার সামনে। কেননা বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছেন, মিরপুরের উইকেট স্পিনবান্ধব হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

এক নজরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সেরা একাদশ:

সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক) নুরুল হাসান, আফিফ হোসেন, শামীম পাটোয়ারি, মাহাদী হাসান, নাসুম আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।