অলিম্পিক নিয়ে শঙ্কার খবর শোনালেন আয়োজকপ্রধান

প্রকাশিত: ১:৫২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০২১

করোনা মহামারির মধ্যে টোকিও অলিম্পিকের আয়োজন নিয়ে নানা আলোচনা হচ্ছে। এরই মধ্যে অলিম্পিকে অংশ নিতে যাওয়া কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এমনকি আয়োজক দেশ জাপানবাসীও এই অবস্থায় টুর্নামেন্ট আয়োজন নিয়ে সন্তুষ্ট নয়। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই শঙ্কার খবর দিলেন ‘টোকিও অলিম্পিক ২০২০’-এর আয়োজক কমিটির প্রধান তোশিরো মুতো।

জাপানে করোনা পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নয়। দেশটির লোকজন গেমস আয়োজনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে গেমস আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু, গেমস শুরু হওয়ার আগেই ভিলেজে করোনার হানায় আয়োজকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। সেইসঙ্গে স্পন্সরদের মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার শঙ্কা তো আছেই। সবমিলিয়ে শঙ্কার মুখে অলিম্পিক।

করোনার এই পরিস্থিতিতে আসরটি এখন আর বাতিল হতে পারে কি-না—এমন প্রশ্নে আয়োজক কমিটির প্রধান তোশিরো মুতো জানিয়েছেন, করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার ওপর নজর রাখবেন তাঁরা। এমনকি প্রয়োজনে অন্য আয়োজক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।

এনপিআরের খবর অনুযায়ী এক সংবাদ সম্মেলনে তোশিরো বলেন, ‘করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কেমন হবে, তা আমরা অনুমান করতে পরছি না। তাই, আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাব। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে আবারও আমরা পাঁচ পক্ষের বৈঠকে বসব। এই মুহূর্তে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে পারে, আবার কমতেও পারে। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লে আমাদের কী করণীয় সেটা ভেবে দেখব।’

এদিকে, নতুন করে বিচ ভলিবল দলের ট্রেইনার সিমন নাউশ কোভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার চেকদের অলিম্পিক দল থেকে খবরটি নিশ্চিত করা হয়েছে। একদিন আগে আক্রান্ত হয়েছেন দলের সদস্য ওন্দ্রে পেরুসিচ করোনা পজিটিভ হন। প্রথমজনের নাম জানানো হয়নি। আপাতত নউশ ও পেরুসিচ দুজনই অলিম্পিক ভিলেজ ছেড়ে আইসোলেশনে আছেন। আইসোলেশনে থাকার কারণে আগামী ২৬ জুলাই তাঁদের প্রথম ম্যাচে অংশগ্রহণ নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।

গত বছর অলিম্পিক আয়োজনের কথা ছিল। করোনার কারণে তখন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অবশ্য এখন ইউরোপে করোনার প্রভাব কমলেও এশিয়ার বেশিরভাগ জায়গায় এখনও করোনার বাড়ছে।